২০১৮ কি ভাঁজ করা স্মার্টফোনের বছর?

গত এক দশকে স্মার্টফোনের বিভিন্ন ফিচারে নানা ধরনের পরিবর্তন এসেছে। ডেস্কটপ, ল্যাপটপের স্থান অনেকটাই দখল করে নিয়েছে স্মার্টফোন। বিভিন্ন কোম্পানি তাদের সর্বশক্তি দিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বাজার প্রতিযোগিতায় নিজেদের সক্ষমতা বাড়াতে। স্মার্টফোনে যোগ হচ্ছে নতুন নতুন নানা প্রযুক্তি। তবে সব কিছু ছাপিয়ে এবার নতুন কিছু আসতে যাচ্ছে। সেটি সম্ভবত ভাঁজ করা স্মার্টেফোন। ২০১৮ সালে প্রায় সবকটি বড় স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানি এ ধরনের স্মার্টফোন বাজারে আনতে পারে।

বাজার বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন, আগামী বছর থেকেই বাজারে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের দেখা মিলতে পারে। স্মার্টফোন নির্মাতারা ঝুঁকছেন নতুন এ ধারার দিকে। গত কয়েকদিন ধরে আলোচনায় ছিল কোরিয়ান জায়ান্ট স্যামসাংয়ের ভাঁজ করা স্মার্টফোন। সে ধারায় এবার নতুন চমক দিল মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা অ্যাপল। অ্যাপল এমন একটি আইফোনের জন্য পেটেন্ট অনুমোদন পেয়েছে, যা বইয়ের মতো ভাঁজ করা ও খোলা যাবে।

২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের পেটেন্ট অ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিসে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের জন্য আবেদন করেছিল অ্যাপল। চলতি নভেম্বরে ওই আবেদন মঞ্জুর হয়েছে।

এ কাজে তাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে আরেক কোরিয়ান কোম্পানি এলজি। সাধারণত আইফোনের ডিসপ্লে প্রতিদ্বন্দ্বী স্যামসাংয়ের কাছ থেকে কেনে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ। তবে ভাঁজ করা স্মার্টফোনের জন্য এলজির সঙ্গে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেয় মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।

আগামী বছরেই ভাঁজ করা স্মার্টফোন বাজারে আনার পরিকল্পনা করছে স্যামসাং। এটি হতে পারে স্যামসাংয়ের নতুন চমক। তাদের স্মার্টফোনটির নাম হতে পারে গ্যালাক্সি-X। তবে এ কাজে পিছিয়ে থাকবে না কেউই। অ্যাপল, স্যামসাং ছাড়াও ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরিতে আগ্রহ দেখাচ্ছে চীনের হুয়াওয়ে। সম্প্রতি প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের সিইও রিচার্ড ইয়ু বলেছেন, আগামী বছর নাগাদ হুয়াওয়ের সেই ফোন বাজারে দেখা যেতে পারে।

আরেক টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফটও ভাঁজ করা স্মার্টফোনের পেটেন্ট করাচ্ছে। ভাঁজ করা যায় এবং তিনটি মোডে চালানো যায়, এমন স্মার্টফোন তৈরির পরিকল্পনা করছে মাইক্রোসফট। তথ্যসূত্র: আইএএনএস।

মতামত

comments

Post Author: admin