শিশুর মিথ্যা বলা বন্ধের চার উপায়।

আপনার শিশু কি বেশি মিথ্যা কথা বলে? শিশু কল্পনা করে কোনো গল্প শোনাচ্ছে সেটি এক বিষয়, আর শিশু সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা বলছে, সেটি কিন্তু একদম আলাদা। মিথ্যা বলার অভ্যাস একজন মানুষের ব্যক্তিত্বে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এটি একসময় তার জীবনে ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সত্যবাদী হওয়ার অভ্যাস শেখানো প্রয়োজন ছোটবেলা থেকেই।  শিশুর মিথ্যা কথা বলা বন্ধের কিছু উপায় জানিয়েছে জীবনধারা বিষয়ক ওয়েবসাইট ফেমিনা।

শাস্তি দেবেন না
অনেক সময় শিশুরা মিথ্যা বললে মা-বাবা তাকে শাস্তি দেন। আসলে শাস্তি এ ক্ষেত্রে তেমন কোনো কাজে আসে না। প্রথমে একটু ভয় পেলেও পরে শিশুটি আবার সেই কাজটিই করতে থাকে।প্রথমে জানান আপনি তার মিথ্যা কথা বলার বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন। এরপর তাকে আপনার কাছে বিষয়টি খুলে বলার সুযোগ দিন, স্বীকার করার সুযোগ দিন।

সত্য বলার জন্য আদর করুন
শিশুটি আপনার কাছে এলে এবং সত্য স্বীকার করলে তাকে বকা না দিয়ে আদর করুন। বিষয়টি করা ঠিক নয় সেটি বুঝিয়ে বলুন। এতে তার ভয় কমবে। পাশাপাশি মিথ্যা বলার ক্ষতিকর দিকগুলো বুঝিয়ে বলুন।

সমস্যা একত্রে সমাধান করুন
যখন শিশুটি বিষয়টি স্বীকার করবে তখন একসঙ্গে বসে সমস্যাটি সমাধানের চেষ্টা করুন। এতে শিশুর নিজের প্রতি যেমন বিশ্বাস বাড়বে তেমনি আপনার প্রতিও তার বিশ্বাস বাড়বে। পাশাপাশি আপনি তাকে সাহায্য করতে পারবেন সমস্যাটি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য।

তাকে পছন্দ করতে দিন
অনেক সময় মা-বাবা শিশুটির সব কিছু ঠিক করে দেন। মা-বাবার মতামত বারবার শিশুর ওপর চাপিয়ে দেন। হয়তো টেলিভিশনে কী দেখবে, কী পোশাক পরবে সবই ঠিক করেন তারা। এটি না করে শিশুকে পছন্দ করার সুযোগ দিন। এতে সে তার মতপ্রকাশে সুযোগ পাবে। এতে হয়তো লুকিয়ে কিছু করার প্রয়োজনীয়তা বোধ করবে না।

 

মতামত

comments

Post Author: admin