কেন প্রেম করতে পারছেন না জাপানী তরুণীরা! জেনে নিন।

টোকিও: জাপানী তরুণীদের জীবনে প্রেম নেই। তাদের প্রায় ৬০ শতাংশ তরুণী তীব্র কাজের চাপে প্রেম করতে পারছেন না।

অনলাইন ভিত্তিক প্রেমের পরামর্শ প্রদানকারী সংস্থা কোকোলোনি ডট জেপি’র একটি জরিপের বরাত দিয়ে শনিবার জাপান টাইমস এক প্রতিবেদনে এ কথা জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে জাপানে পুরুষদের মতো নারীরও একই ধরনের কাজের চাপ থাকে। ক্রমবর্ধমান এই কাজের চাপে অতিরিক্ত ক্লান্তির কারণে নারীরা অবসর সময়ে সোফায় শুয়ে থাকে কিংবা সিরিয়াল দেখে। ক্লান্ত শরীরে জাপানী নারীদের আর প্রেম করতে কিংবা ডেটিংয়ে যাওয়ার মতো শারীরিক ও মানসিক অবস্থা থাকে না। খবর সিনহুয়া’র

জরিপটির মতে, প্রচন্ড কাজের চাপে ডেটিংয়ের সময় প্রতি চার জনে একজন নারী ঘুমিয়ে পড়েন।

অপর অনলাইন ডেটিং সাইট লাভলি মিডিয়া জানিয়েছে, ক্রমবর্ধমান হারে নারীরা ডেটিং বর্জন করছেন। কারণ তারা মনে করছেন যে এটা ‘সময়ের অপচয় মাত্র’।

এর পরিবর্তে সন্তানের মা হওয়াটাকেই তারা তাদের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন। আর এজন্য ঘটকের মাধ্যমে তারা নিজেদের জন্য একজন আদর্শ স্বামী খুঁজছেন।

জাপানে মাত্র ২০ সেকেন্ড আগে ট্রেন ছাড়ায় দুঃখ প্রকাশ!
জাপানের একটি রেলওয়ে স্টেশন থেকে নির্ধারিত সময়ের মাত্র ২০ সেকেন্ড আগে একটি ট্রেন ছাড়ায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ। এর মধ্য দিয়ে সময়ানুবর্তিতা ও সৌজন্যবোধের জন্য জাপানিদের যে খ্যাতি রয়েছে, তাই আবার প্রমাণিত হলো। খবর এএফপির

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জাপানের রাজধানী টোকিওর উত্তরাঞ্চলীয় শহরতলির মধ্যে চলাচল করা সুকুবা এক্সপ্রেস ট্রেনটি নির্ধারিত সময় ছিল ৯টা ৪৪ মিনিট ৪০ সেকেন্ড, কিন্তু ট্রেনটি ৯টা ৪৪ মিনিট ২০ সেকেন্ডে মিনামি নাগারাইয়ামা স্টেশন ছেড়ে যায়। যদিও ২০ সেকেন্ড আগে ট্রেন ছাড়ার ব্যাপারে কোনো যাত্রী অভিযোগ করেনি।

তবে জাপানের ওই রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ নিজ থেকে বলেছে, যাত্রীদের এমন অসুবিধায় ফেলায় তারা দুঃখিত ও ক্ষমাপ্রার্থী। তাদের এ ভুলের কারণে যাত্রীদের ‘ভীষণ অসুবিধায়’ পড়তে হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

জাপান রেলওয়ের দ্রুতগতির বুলেট ট্রেন সেবার জন্য বেশ সুনাম রয়েছে।

কিন্তু ইভাঙ্কাকে কেমন দেখেছেন জাপানের নারীরা?
ইভাঙ্কা ট্রাম্প বক্তব্য রাখছিলেন ওয়ার্ল্ড এসেম্বলি ফর উইমেন অনুষ্ঠানে। তিনি মূলত জাপানে গিয়েছিলেন তার পিতা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাপান সফরের আগে। অনেকে মনে

মতামত

comments

Post Author: admin