পৃথিবীর ১০টি ভয়ঙ্কর প্রানী যাদের সম্পর্কে আজও সবার অজানা। চলুন তাহলে জেনে নেই।

০১। পাখি খাদক মাকড়সা: ঠিকই শুনেছেন,এই মাকড়সা পাখি খায়। এদেরকে দক্ষিন আফ্রিকায় পাওয়া যায় কিন্তু মজার বেপার হলো এরা মানুষের কোন ক্ষতি করে না।

০২। ময়ুর মেন্টিস চিংড়ি: ময়ূর মেন্টিস চিড়ড়ির থাবা বন্দুকের গুলির মতই ভয়ঙ্কর । এদেরকে গভির সাগরে পওয়া যায়। কিন্তুএদেরকে ধরা খুব কঠিন।

০৩। পান্ডা পিঁপড়া: এরা মূলত বোলতা কিন্তুএদেরকে দেখতে কিছুটা পিঁপড়া কিছুটা পান্ডার মতো বলেই এদেরকে পান্ডা পিঁপড়া বলা হয়।এদের কামড় এতটাই ভয়ঙ্কর প্রানী যে কামড়ে বেচে ফেরার সম্ভবনা খুব কম।

০৪। দৈত্য আকৃতির নরম খোলসের কচ্ছপ: এই দৈত্য আকৃতির নরম খোলসের কচ্ছপ ওজন সাধারনত ২৫০কেজি হয়ে থাকে।

০৫। বামবো অক্টোপাস: এই ছোট প্রানীটার নাম বামবো অক্টোপাস । বামবো অক্টোপাস নাম হওয়ার কারনএদের কান দেখতে অনেকটা বাশের শাখার মতো। দেখতে নিরিহ হলেও এরা কিন্তু বেশ ভয়ঙ্কর প্রানী ।

০৬। সাইগা সারং: এই বৃহৎ-সনাসিক প্রাণী এখনও ইউরেশিয়ায় পাওয়া যায় । কিন্তু প্রায় বিলুপ্তির পথে।

০৭। নীল রঙের সাগর ড্রাগন: এরা মূলত সাগরের পতঙ্গ কিন্তুএদেরকে ড্রাগন বলা হয় কারনএদের রং আকৃতি অনেকটা ড্রাগনের মতো। তবেএরা খুব একটা ভয়ঙ্কর প্রানী না।

০৮। চীনের দানবাকার সরীসৃপ (উভচর প্রাণি): চীনের এই সরীসৃপ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উভচর প্রাণী । এরা প্রায় ৬ ফুটের বেশি লম্বা হতে পারে।

০৯। সামুদ্রিক রক্তচোষা মাছ: এদের কে সাগরের ভ্যামপায়ার্স বলা হয়। অন্য মাছের শরীরে এরা লেগে গিয়ে রক্ত চুষে খায়। বুঝতেই পারছেন কতটা ভয়ঙ্কর প্রানী

১০। ভারতের রক্তবর্ণ ব্যাঙ: বছরের দুইটি সপ্তাহের জন্য এদেরকে দেখা যায়। তাই এদেরকে ধরাটা ভাগ্যের বেপার বলা যায়।

মতামত

comments

Post Author: admin