জানেন কি? “মাওলানা” শব্দটির অর্থ ।

আল্লাহ সুবাহানাল্লাহু তায়ালা প্রবিত্র কোর-আনে ৯ জায়্গায় ব্যাবহার করেছেন যার অর্থ- মাওলা=প্রভু , আনা=আমি একসঙ্গে (প্রভু+আমি) অথবা আমিপ্রভু অথবা আমাদের প্রভু ।

( সন্ধি বিচ্ছেদ মাওলা+আনা=মাওলানা,  সিংহ+ আসন=সিংহাসন , শাঁখা+ আরি=শাঁখারি ইত্যাদি )

হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) নিজে মাউলানা হয়েও নামের আগে মাউলানা কথাটি ব্যবহার করেননি । দুনিয়ার অন্য কোন নবীর নামের আগে “মাওলানা” শব্দটি ব্যবহার করেননি যেমন-মাওলানা হযরত আদম (আ),মাওলানা ইব্রাহীম (আ), মাওলানা মূছা(আ), মাওলানা ঈসা(আ),মাওলানা মুহাম্মদ(সাঃ),এরপর রাসূল (সঃ) এর কোন সাহাবীর (রাঃ) নামের পূর্বে এ শব্দটি ছিলনা যেমন – মাওলানা হযরত আবু বকর, মাওলানা হযরত উমর, মাওলানা হযরত উছমান, আবার হাদিস সংকলনকারীদের কেউ যেমন- মাওলানা বোখারী, মাওলানা মুসলিম, মাওলানা তিরমিজি ছিলনা, আবার কোন মাজহাবের ইমামদের নামের আগে যেমন মাওলানা হানাফি, মাওলানা শাফি, মাওলানা হাম্বলী, মাওলানা মালেকী আছে নাকি? নাই। অন্যদিকে কোন তরিকার ইমামদের নামের আগে যেমন- মাওলানা আব্দুল কাদের জিলানী, মাওলানা খাজা মুইনুদ্দীন চিশতি আছে নাকি? নাই। বাংলার জমিনে যাদের মাধ্যমে ইসলাম পেলাম তাদের নামের আগে যেমন-মাওলানা শাহজালাল, মাওলানা শাহপরান শুনেছেন কখনো? শুনেন নাই। তাহলে যেই “মাওলানা” আল্লার কোন নবী , কোন রাসূল হতে পারলনা, কোন ছাহাবী,কোন ইমাম, কোন আউলিয়া হতে পারল না অথচ এই মাওলানা কিন্ত ব্র্তমান জামানার হুজুররা। তারা কি আমাদের প্রভু? বা খোদা? এর চেয়ে বড় শির্রক কি হতে পারে? এবার দেখা যাক কোথায় থেকে পেলো এই মাওলানা খেতাব,১৭৮২ সালে বৃটিশ শাসন আমলে সর্বপ্রথম প্রতিষ্ঠিত হয় কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাসা যার প্রথম প্রিন্সিপাল থেকে শুরুকরে ক্রমান্বয়ে ২৬ জন প্রিন্সিপাল ছিল খৃষ্ঠিয়ান,ঐখান থেকে পাস করলে হুজুরদের দেওয়া হতো,হয় “মাওলানা” খেতাব। পরবর্তিতে ১৮৩৭ সালে এদের শাসন আমলেই প্রতিষ্ঠিত হয় দেওবন্দ মাদ্রাসা,তারা লক্ষ লক্ষ ডলার খরচ করেছে ইসলাম ধর্মের জন্য? আর যারা নিজেরাই খোদা, তাদেরকে সাহায্য করবে কোন খোদা ?

 

মতামত

comments

Post Author: admin