এক নারী লাশের মূল্য ১৬ লাখ টাকা যে দেশে।

অবিবাহিত অবস্থায় কোনো যুবক মারা গেলে মৃত নারীর সঙ্গে বিয়ে দিয়ে বর-কনেকে একই কবরে সমাধিস্থ করার রীতি চালু রয়েছে চীনের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে। মৃতের আত্মীয়দের নারীর একটি লাশ যোগাড় করতে ২০ হাজার ডলার পরযন্ত খরচ করে। নারী লাশের এই বাজার মূল্যের জন্য কবর থেকে চুরি হয়ে যাচ্ছে নারীদের লাশ।

চীনের গ্রামাঞ্চলের মানুষের বিশ্বাস, অবিবাহিতদের নারী লাশের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে এক সঙ্গে কবর দিলে তারা পরজীবনে সুখে শান্তিতে থাকবে। সে আর ফিরে আসবে না। তারা মনে করে, মৃতের আত্মা ফিরে আসলে পরিবারের জন্য অমঙ্গল বয়ে আনবে।

পরকালে অবিবাহিত পুরুষদের একজন নারী সঙ্গীর ব্যবস্থা করে তারা পরিবারকে অমঙ্গল থেকে বাঁচাতে চায়। চীনের নারী পুরুষের সংখ্যার অসমতাও বিয়ের এ ভৌতিক রীতি টিকিয়ে রাখতে সাহায্য করছে। নারীর সংখ্যা কম হওয়াতে অবিবাহিত অবস্থায় পুরুষ মারা যাওয়ার হার বেশি। পরিবার মৃত সন্তানের বিয়ে দিয়েও ‘ফ্যামিলি ট্রি’ ঠিক রাখতে চায়।

মৃত জুটিকে কবর দেওয়ার সময় বাদ্য-বাজনা বাজানো হয়। বাদ্য-বাজনা বাজাতে বাজাতে বিয়ের আবহে তাদের কবর দেওয়া হয়।

চীনে ৩ হাজার বছর ধরে এ ভৌতিক বিয়ের রীতি টিকে আছে। চীনের কমউনিস্ট পার্টি আইন করে এ বিয়ে নিষিদ্ধ করেছে। কিন্তু গ্রাঞ্চলের মানুষের মধ্যে থেকে বিশ্বাসের শিকড় উপড়ে ফেলতে পারেনি।

২০১৩ সালে সাংহাই প্রদেশের ডংবাও এলাকা থেকে ১৫ জন নারীর কবর থেকে লাশ চুরি হয়েছে। লি ফুকাইয়ের মায়ের লাশ চুরি হয়েছে। তিনি বলেন, ‘জানি না চোরেরা মাকে কোথায় নিয়ে গেছে। ’

আরেক ব্যক্তির চাচি ও দাদির লাশ চুরি হয়েছে। ওই ব্যক্তি বলেন, ‘নিশ্চয়ই দাদি ভিন গায়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পরজীবনে সে কষ্ট পাচ্ছে।’

গত বছরের অক্টোবরে দক্ষিণ চীন থেকে নারীর লাশ চোর সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

 

মতামত

comments

Post Author: admin