বিশ্বের আজব ৫ টি বিবাহরীতি জানলে সবার হাঁসি পাবে।

প্রায় সারা বিশ্বে বিবাহ একটি আনন্দের অনুষ্টান কিন্তু হঠাৎ কোনো স্থানে এই বিবাহকে  ঘিরে কিছু অদ্ভুত অনুষ্টানের প্রচলন আছে । আজ ৫ টি বিবাহ অনু্ষ্টানের কথা বলব যা শুনে আপনি অবাক হতে বাধ্য হবেন । ১। স্কটল্যান্ডে নবদম্পওির গায়ে আবর্জনা ছড়ানো :- বিবাহের দিনটি হলো নবদম্পওির জীবনে সবচেয়ে আনন্দের দিন। এই দিনটিতে নবদম্পওিদের আত্নীয়স্বজন বন্ধুবান্ধব  সবাই উপস্থিত হয় তাদের শুভেচ্ছা ও আর্শিবাদ করার জন্যে কিন্তু একবার ভেবে দেখুন এই উপস্থিত আত্নীয়স্বজনরা দলবদ্ধ হয়ে যদি আবর্জনা ছড়াই নবদম্পওির গায়ে তাহলে কি অদ্ভুত পরিস্থিতি দাড়ায়। স্কটল্যান্ডের বিবাহ রীতিতে এই রকমের প্রথা প্রচলন আছে। এখানে নবদম্পওির গায়ে আবর্জনা ছড়ানো, পচা দুধ, শাকসবজি, মৃত মাছ পচে যাওয়া খাদ্য ও ডিম কিছুই বাদ যায় না নবদম্পওির গায়ে দেওয়া। তাদের বিশ্বাস হলো নবদম্পওি সবকিছু সহ্য করে সুষ্টভাবে এই প্রথাটি পরিচলনা করতে পারলে তাহলে তাদের পরবর্তীকালে  বিবাহ জীবনে যখন কঠিন সময় আসবে তখন তারা সহজে কাটিয়ে উঠতে পারবে । ২।ইন্দোনেশিয়াতে টয়লেটের ব্যবহার না করা :- ইন্দোনেশিয়াতে বিবাহ একটি বড় অনুষ্টান কিন্তু এখানে বিবাহের পর নবদম্পওিকে তিনদিন ধরে টয়লেট ব্যবহার করতে দেওয়া হয় না আর এই বিষয়টির উপর কঠুর ভাবে নজর রাখে পরিবারে লোকেরা। এই তিনদিন যাবত নবদম্পওিদের খুব অল্প পরিমানের খাবার ও পানি দেওয়া হয়। এখানকার মানুষের ‍বিশ্বাস এই প্রথাটি সঠিক ভাবে মেনে চললে নবদম্পওির বিবাহ জীবন সুখী হবে এবং তারা সুস্থ ও স্বাথ্যবান শিশু জন্ম দিবেন। ৩। কেনিয়ায় পিতার অদ্ভুত আর্শিবাদ :- কেনিয়ার মেশাই জনজাতিদের মধ্যে বিবাহের পর নববধু যখন তার বাড়ি ছেড়ে স্বামীর বাড়ি যায় সেই সময় নববধুর পিতা মুখে করে জল নিয়ে তার কন্যার মুখের উপর ‍ছিটিয়ে দেয় এবং নবদম্পওিকে আর্শিবাদ প্রধান করেন । এরপর নব-বধু আর ‍পিছনের দিকে ফিরে তাকায় না । ৪। চীনে বিবাহের দিন নির্বাচন :- চীনে মঙ্গলীয় জন-জাতীর মধ্যে বিবাহের দিন নির্বাচন করার জন্য এক অদ্ভুত প্রথা প্রচলন আছে। বিবাহের তারিখ নির্ধারন করার জন্য সেই হবু দম্পওিকে একটি মুরগির বাচ্চার জীবন নিতে হয়। প্রথা অনুযায়ী এই হবু দম্পওিকে এক সাথে ছুরি দিয়ে মুরগির বাচ্চার পেট কেটে তার লিভার বের করতে হবে। লিভারটি যদি লাল ও ভাল হয় তাহলে তারা সেই দিনেই বিবাহের দিন নির্ধারন করবে। আর যদি লিভারটি সন্তোষ জনক না হয় তাহলে এই নিয়মটি পুনরায় পালন করে বিবাহের দিন নির্ধারন করতে হবে। ৫। ভারতে গাছের সাথে বিবাহ রীতি:- ভারতে কিছু মহিলার জন্ম মাঙ্গলিক লগ্নে হয়। জ্যোতি শাস্ত্র অনুযায়ি তখন মঙ্গল ও শনি পরস্পর এক সাথে সপ্তমে অবস্থান করে সেই সময় কালটিকে মাঙ্গলিক লগ্ন বলা হয় এটি অশুভ সময় মনে করা হয়। তাই কোন কন্যা সপ্তমিতে জন্ম গ্রহন করলে তার স্বামী অল্পদিনের মধ্যে মারা যায়। তাই এই অশুভ দিনটিকে কাটাবার জন্যে সেই কন্যা সন্তানটিকে একটি গাছের সাথে বিবাহ দেওয়া হয়। তার পর সেই মেয়েকে পুনরায় মানুষের কাছে বিবাহ দেওয়া হয়।

 

মতামত

comments

Post Author: admin