দাড়িয়ে পানি পান করলে কি পরিমান ক্ষতি সাধন করে মানব দেহে জেনে নিন এক্ষনি।

জীবনের উৎস হলো পানি । তাই পানি ছাড়া বেচেঁ থাকাটা প্রায় অসম্ভব । কিন্তু আপনাদের কি জানা আছে পানি পনে সঠিক পদ্ধতি সম্পর্কে

পরিসংখ্যান বলেছে,বিশ্বের প্রায় ৪০- ৫০ শতাংশ মানুষের এই বিষয়ে কোনো জ্ঞান নেই । ফলে পানি পান করে সবাই তো চাহিদা

মেটাচ্ছে সেই সঙ্গে শরীরেরও মারাত্মক ক্ষতি করে ফেলছে । যেমন ধরুন,কখনই দাড়িয়ে দাড়িয়ে পানি করা উচিত নয় । কেন জানেন ?

পানি খাওয়া মাএ আমাদের শরীরে উপস্থিত একাধিক ছাকনি সেই জলে ক্ষতিকর উপাদান ছেকে নিয়ে শরীরে বাইরে বের করে দিচ্ছে ।

এখন যদি এই ছাকনিগুলো ,ঠিক মতো কাজ করতে না পারে তাহলে কী হবে একবার ভেবে দেখুন ? জলে উপস্থিত অস্বাস্থয়কর উপাদান

গুলি রক্তে মিশতে শুরু করবে।ফলে এক সময় গিয়ে শরীরে টকিনের মাএা এতটাই বেড়ে যাবে যে একধিক অঙ্গের উপর তার খারাপ

প্রভাব পরবে ।তাই তো বিশেষ কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা একান্ত প্রয়োজন । যেমন দাড়ানো অবস্থায় কখনও পানি পান করবেন না ।

কারন এমনটা করলে শরীরে অন্দরে থাকা  ছাকনি ‍গুলি সংকুতিত হয়ে যায় ।ফলে ঠিক মতো কাজ করতে পারে না । আর এমটা হলে

কী হতে পারে তা নিশ্চয় কারো অজানা নয় ।পাকস্থলীতে ক্ষত সৃষ্টি হয় । দাড়িয়েপানি খেলে তা সরাসরি পাকস্থলীতে গিয়ে আঘাত করে

। সেই সঙ্গে স্টমাকে উপস্তিত অ্যাসিডের কর্মক্ষমতাও কমিয়ে দেয় । ফলে বদ হজমের আশস্কা বৃদ্ধি পায় । সেই সঙ্গে পাকস্থলির

কর্মক্ষমতা কমে যাওয়ার কারনে  তলপেটে যন্থণা সহ আরও নানা সব শারীরিক অসুবিধা দেখা দেয় । র্আথ্রাইটিসে আক্রান্ত হওয়ার আশষ্কা

খাকে, আপনি   ঠিক শুনেছেন  দাড়িয়ে জল খাওয়ার সঙ্গে র্আথ্রাইটিসের সরাসরি যোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে শরীরের ভিতরে থাকা কিছু      উপকারি রাসায়নিকের মাত্রা কমতে থাকতে ফলে জয়েন্টের কর্মক্ষমতা কমে যাওয়ার কারনে এই ধরনের রোগে আক্রান্ত হওায়ার সম্ভাবনা  বৃদ্ধি পায়। প্রসঙ্গত যারা ইতিমধ্যেই এই রোগের আক্রান্ত হয়েছেন তারা ভুলেও এই কু অভ্যাসটি রপ্ত করবেন না তাহলে সমস্যা দিন দিন বেড়ে চলবে। অ্যাংজাইটিক লেভেল বেড়ে যায় একাধিক গবেষনায় দেখা গিয়েছে দাড়িয়ে পানি খেলে একাধিক নার্ভের প্রদাহ সৃস্টি হয় ফলে কোন কারন ছাড়াই মানসিক চাপ বা অ্যাংজাইটিং লেভেল বাড়তে শুরু করে প্রসঙ্গত অকারন মানসিক চাপ কিন্তু শরীরে জন্য একবারেই ভাল নয়। তাই এক্ষেতে সাকধানতা অবলম্বন করাটা জরুরি। দাড়িয়ে পানি পান করলে কিডনিতে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যেমনটা আওগেই বলা হয়েছে যে দাড়িয়ে পানি পান করার সময় শরীরের অন্দরে থাকা ছাকনিগুলো ঠিকমত কাজ করতে পারে না ফলে পানির মধ্যে থাকা একাধিক ক্ষতিকর উপাদান প্রথমে রক্তে গিয়ে মিশে তার পর সেখান থেকে কিডনিতে এসে জমা হতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে কিডনির কর্ম ক্ষমতা কমে গিয়ে এক সময় কিডনি ড্যামেজের সম্ভবনা দেখা দেয়। তাই আজ থেকে ভুলেও দাড়িয়ে পানি পান করার কথা ভাববেন না

 

মতামত

comments

Post Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *